সিঙ্গাপুরে ওয়েল্ডিং কাজের বেতন কত

বর্তমানে এশিয়ার মধ্যেও সবচেয়ে উন্নত দেশগুলোর মধ্যেও একটি সিঙ্গাপুর। সিঙ্গাপুরে অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশি বেতন দিয়ে থাকে। কাজের উপর ভিত্তি করে আপনার বেতন নির্ধারণ করা হয়। আপনি যদি কোন কাজে দক্ষ হন তাহলে সেই কাজে অবশ্যই আপনি বেতন বেশি পাবেন। তবে সবচেয়ে সুন্দর বিষয় হল সিঙ্গাপুর এমন একটি দেশ যেখানে মাস শেষে নির্দিষ্ট তারিখে আপনার একাউন্টে মাসিক বেতন পৌঁছে যাবে।

সিঙ্গাপুরে যেতে হলে আপনাকে অবশ্যই স্কেল করে যেতে হবে আর বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের দুর্নীতির কারণে স্কেল বন্ধ রয়েছে। তবে এখন আরেকটি সুযোগ সুবিধা তৈরি হয়েছে সেটি হলো বর্তমান সময়ে আন স্কেল মাধ্যমে সিঙ্গাপুর যেয়ে সেখানে স্কেল করার নতুন সুযোগ তৈরি হয়েছে।

সিঙ্গাপুর অবস্থানরত থাকা অবস্থায় আপনাকে পছন্দের ট্রেড বেছে নিয়ে স্কেল করতে হবে। আপনি যদি কোন কাজ ভাল পারেন তাহলে আপনাকে সেই কাজে পাঠানো হবে। কাজ ভালো করে দেখাতে পারলে আপনাকে সম্মান দেখাবে এবং আপনাকে বেশি বেতন দিয়ে রেখে দেবে।

সিঙ্গাপুর বেতন কত

সিঙ্গাপুরের বেতন কোন নির্দিষ্টতা নেই। আপনার কাজের উপর নির্ভর করে আপনার বেতন নির্ধারিত হবে। তবে প্রাথমিক অবস্থায় আপনাকে বেসিক হিসেবে ১৯ থেকে ২১ ডলার প্রদান করা হবে এবং ওভার টাইম করার মাধ্যমে আপনি বাড়তি ইনকাম করতে পারবেন।

আপনার স্কেল যদি ভাল কোন ট্রেডের উপর হয় অথবা স্কেল এস পাস হয় সেক্ষেত্রে আপনাকে প্রাথমিক দিকে ২৬ থেকে ৩২ ডলার পর্যন্ত দেওয়া হবে। সিঙ্গাপুরে এক মাসের বেতন আপনাকে ৫৫ হাজার থেকে ৩ লক্ষ টাকার মত প্রদান করবে। আর এই বেতন কম বেশি হওয়া সম্পূর্ণ কাজের উপর নির্ভর করবে।

আপনি যদি সিঙ্গাপুরে কাজের প্রতি মনোযোগ দেন এবং সার্টিফিকেট অর্জন করতে পারেন তাহলে সেই সার্টিফিকেট অনুযায়ী আপনাকে বেতন বাড়িয়ে দেওয়া হবে। বাংলাদেশ থেকে অনেক মানুষ আছে যারা প্রতিবছর বেতন বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন রকমের পরীক্ষা দিয়ে থাকে।

আপনার উচিত সিঙ্গাপুর প্রবেশ করার পর নিজের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য বাড়তি সময় ব্যবহার করা এবং প্রতি রবিবার এক্সট্রা ক্লাস করার মাধ্যমে নিজের কাজের দক্ষতা উন্নয়নের চেষ্টা করা যেতে পারে। এতে করে আপনি খুব সহজেই কিছুদিনের মধ্যেও নতুন সার্টিফিকেট পেলে কোম্পানিকে দেখিয়ে ভালো টাকা বেতনে চাকরি পেতে পারেন।

সিঙ্গাপুর সর্বনিম্ন বেতন কত

সিঙ্গাপুরের সর্বনিম্ন বেতন ৫৫ হাজার টাকা। আপনার যদি ইংলিশে কোন দক্ষতা না থাকে কথা বলার সামর্থ না থাকে তাহলে আপনার জন্য বেশ কষ্টসাধ্য হবে সিঙ্গাপুর। সিঙ্গাপুরের বেশিরভাগ মানুষ ইংলিশ ও চায়না ভাষায় কথা বলে। আপনার যদি কোন দক্ষতা না থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনাকে সর্বনিম্ন বেতন হিসেবে ৫৫ হাজার টাকা প্রদান করবে। যদি আপনার কাজের দক্ষতা বৃদ্ধি পায় তাহলে আপনার কাজের মানের উপর নির্ভর করে বেতন বাড়িয়ে দেওয়া হবে।

সিঙ্গাপুরে সর্বোচ্চ বেতন কত

সিঙ্গাপুর প্রবাসীদের বেতন সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকারও বেশি হতে পারে। তবে এর চেয়ে আরো বেশি বেতনে কাজ করতে হলে আপনাকে অবশ্যই সিঙ্গাপুর সরকার অনুমোদিত আরো কিছু সার্টিফিকেট প্রয়োজন হবে যেগুলো দেখানোর মাধ্যমে আপনি কোম্পানি থেকে আরও বেশি টাকা বেতনে কাজ করতে পারবেন।

বর্তমান সময়ে একজন সিঙ্গাপুর শ্রমিকের বেতন কমপক্ষে ৭০ হাজার থেকে ৯০ হাজার টাকা হয়ে থাকে। সিঙ্গাপুরের সর্বোচ্চ বেতন নির্ধারিত হয় আপনার পেশা ও দক্ষতার উপর। তাই আপনার দক্ষতা বৃদ্ধি পেলে আপনি বেতন বৃদ্ধির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

সিঙ্গাপুরে ওয়েল্ডিং কাজের বেতন কত

সিঙ্গাপুরে যাওয়ার জন্য যারা ওয়েল্ডিং এর উপর স্কেল করেছেন তাদের বেতন প্রাথমিক অবস্থায় ৬০ থেকে ৮০ হাজার টাকার মত হবে। আরো ভালো কোম্পানিতে প্রবেশ করতে পারলে আরো বেশি বেতনে ওয়েল্ডিং এর কাজ করতে পারবেন।

যখন আপনি ওয়েল্ডিং এর ওপর আরো নতুন দক্ষতা লাভ করবেন তখন আপনার বেতন আরো বৃদ্ধি করা হবে। বেসিক ও ওভারটাইম মিলিয়ে তখন আশি থেকে এক লাখ দশ হাজার পর্যন্ত বেতন পেতে পারেন পেতে পারেন।

বর্তমান সময়ে সিঙ্গাপুরে ওয়েল্ডিং এর কাজের চাহিদা অনেক এই কাজে সিঙ্গাপুরের অনেক টাকা বেতন দিয়ে থাকে। প্রাথমিক অবস্থায় ওয়েল্ডিংয়ের কাজে সবচেয়ে বেশি বেতন দেয়। তাই সিঙ্গাপুর যাওয়ার জন্য আপনি ওয়েল্ডিং এর কাজ শিখতে পারেন এবং এই বিষয়ের উপরে স্কেল করতে পারেন।

সিঙ্গাপুরে ড্রাইভিং ভিসা বেতন কত

সিঙ্গাপুর থেকে সবচেয়ে বেশি টাকা ইনকামের জনপ্রিয় উপায় হল ড্রাইভিং শেখা। আপনি যদি ভালো ড্রাইভিং পারেন অথবা ড্রাইভিং করার মত সাহস থাকে তাহলে সিঙ্গাপুর থেকে আপনি খুব সহজেই ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে পারবেন। সবচেয়ে মজার বিষয় হলো সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিং লাইসেন্স ইন্টারন্যাশনাল তাই এ ড্রাইভিং লাইসেন্স যে কোন দেশে চলবে।

সিঙ্গাপুরের ড্রাইভিংয়ের বেতন ৮০ হাজার টাকা থেকে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। ড্রাইভিং লাইসেন্সে বিভিন্ন ধরনের ভাগ রয়েছে। কোম্পানির গাড়ি ড্রাইভিং করার মাধ্যমে আপনি অনায়াসে এক লাখ টাকার মত ইনকাম করতে পারবেন। তবে, কিছু কোম্পানির ফ্যাক্টরিতে ফকলেট ও মালবাহী গাড়ি চালনা করতে হয়। এইসব গাড়ি চালনা করলে আপনাকে কোম্পানির পক্ষ থেকে দেড় লাখ টাকার মতন বেতন দিবে।

বর্তমান সময়ে সিঙ্গাপুরের জন্য ড্রাইভিং ভিসার আবেদন করতে অনেক টাকা প্রদান করতে হয়। অন্যান্য ভিসার জন্য কম টাকা দিতে হলেও এই ভিসার জন্য আরো বাড়তি কিছু টাকা গুনতে হয়। তাই ভালো কোম্পানিতে ড্রাইভিং লাইসেন্সে যেতে হলে আপনাকে আরো বেশি টাকা প্রদান করতে হবে।

সিঙ্গাপুরে কোন কাজের বেতন বেশি

সিঙ্গাপুরে বেতন বেশি হওয়ার জন্য আপনার অবশ্যই কাজের সার্টিফিকেট থাকতে হবে। সিঙ্গাপুরের টেকনিশিয়ানদের বেতন সবচেয়ে বেশি। কাজের পাশাপাশি টেকনিশিয়ান হওয়ার জন্য অনলাইনে ক্লাস বুকিং করতে পারেন এবং পরীক্ষা দেওয়ার মাধ্যমে সার্টিফিকেট অর্জন করতে পারেন।

আরো কিছু কাজ রয়েছে যেমন মার্কেটিং ম্যানেজার, সুপারভাইজার, সিনিয়র কোয়ালিটি ইঞ্জিনিয়ার এই সকল কাজে ৩ লক্ষ টাকা বা তারও বেশি টাকা মাসিক বেতন হিসেবে দিয়ে থাকে। আপনার যদি কাজের প্রতি ভালো প্রতিভা থাকে ও কোম্পানিকে কাজের মাধ্যমে লাভ দেখাতে পারেন সে ক্ষেত্রে আপনাকে আরো বেশি বেতন দিয়ে কোম্পানিতে রেখে দেওয়া হবে।

এছাড়াও সিঙ্গাপুর আর কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো করে আপনে বাড়তি টাকা আয় করতে পারবেন। সিঙ্গাপুর মার্কেটিং ও ব্লগিং করার মাধ্যমে বা বিভিন্ন কোম্পানির গ্রাফিক্স ডিজাইন করে দেওয়ার মাধ্যমে ১ থেকে ২ লাখ টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

Read More

সিঙ্গাপুর যেতে কত টাকা লাগে?

সিঙ্গাপুর কোন কাজে চাহিদা বেশি?

Leave a Reply - Backlink not allowed