নগদ ইসলামিক একাউন্ট চালু করার নিয়ম

আজকে আপনাদেরকে জানিয়ে দেবো কিভাবে নগদ রেগুলার একাউন্টকে নগদ ইসলামিক একাউন্টে পরিবর্তন করবেন। নগদ একাউন্ট একাউন্ট এর সুবিধা ও অসুবিধা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি নিচে থেকে নগদ একাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন।

নগদ ইসলামিক একাউন্ট কি – অনেকেই  এই প্রশ্ন করে থাকেন, নগদ ইসলামিক একাউন্ট হচ্ছে শরীয়তসম্মত সুদবিহীন লেনদেন ব্যাবস্থা। সাধারণ একাউন্টে টাকা জমা রাখলে প্রতিমাসে টাকার পরিমাণ হিসাবে যে সুদ আসে সেই টাকা মেইন একাউন্টে জমা হয়। তবে, নগদ ইসলামিক একাউন্টে পরিবর্তন করা হলে আর কোনো সুদ বা মুনাফা দেওয়া হবে না।

নগদ ইসলামিক একাউন্ট

নগদ একাউন্ট কে ইসলামিক একাউন্টে কনভার্ট করার জন্য আপনাকে My Nagad (নগদ) এপ্লিকেশন টি প্রয়োজন হবে। নগদ এপ্লিকেশনটি ছাড়া আপনি রেগুলার একাউন্ট কে ইসলামিক একাউন্টে কনভার্ট করতে পারবেন না, My Nagad অ্যাপসটি আপনার মোবাইলে থাকতে হবে,  মাই নগদ আপ্পসটি প্লে স্টোরে পেয়ে জাবেন।

তাহলে, চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে নগদ একাউন্ট কে ইসলামিক একাউন্টে পরিবর্তন করবেন।

Step, 1

প্রথমে আপনার মোবাইল নাম্বার এবং নগদ পিন ব্যবহার করে নগদ এপসটিতে প্রবেশ করুন এবং ডান দিকে নিচে থাকা My Nagad অপশনটিতে ক্লিক করুন।

My Nagad Account
My Nagad Account

Step, 2

এবার নিচে অনেকগুলো অপশন দেখতে পাবেন সেখান থেকে দ্বিতীয় অপশন Account Type প্রবেশ করুন।

my nagad account type
my nagad account type

Step, 3

Account Type – Regular থেকে ইসলামিক একাউন্ট পরিবর্তন করার জন্য আপনার নগদ পিন দিতে হবে, PIN দেওয়ার পর CONFIRM বাটনে ক্লিক করুন।

my nagad pin
my nagad pin

একবার নগদ পিন দিয়ে কনফার্ম করলে আপনার অ্যাকাউন্টটি নগদ ইসলামিক একাউন্টে রূপান্তরিত হয়ে যাবে। এবার নতুন করে যখন আপনি নগদ অ্যাপ্লিকেশনটিতে প্রবেশ করবেন তখন নগদ ইসলামিক এর নতুন Interface (ইন্টারফেস) দেখতে পাবেন।

নগদ ইসলামিক একাউন্ট এর সুবিধা

একজন প্রকৃত মুসলিম হিসেবে আমাদের উচিত সুদ মুক্ত টাকা লেনদেন করা এবং অর্থ গ্রহণ করা। নগদ ইসলামিক একাউন্ট এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হল এই টাকা লেনদেন করা সম্পূর্ণ হালাল।

নগদ ইসলামিক একাউন্টের আরো বিভিন্ন সুবিধা রয়েছে যেমন,

  • টাকা জমা রাখলে কোন প্রকার অতিরিক্ত মুনাফা প্রদান করবে না এবং সুদ যুক্ত হবে না।
  • হজ্জ টুর দেওয়ার জন্য নগদ ইসলামিক একাউন্ট থেকেই পেমেন্ট করতে পারবেন।
  • ইসলামিক ইন্সুরেন্স পেমেন্ট করা যায়।
  • বিভিন্ন ইসলামিক প্রতিষ্ঠানে যাকাত বা ডোনশন দেওয়া যায়।

নগদ ইসলামিক ফিউচার সমূহ

নগদ ইসলামিক একাউন্টে গুরুত্বপূর্ণ চারটি ফিউচার দেয়া হয়েছে যেগুলো ইসলামিক আওতাভুক্ত। আপনি চাইলে নগদ একাউন্টের মাধ্যমে এই ফিউচারগুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

১. সুদবিহীন

নগদ ইসলামিক একাউন্ট একটি সুদবিহীন একাউন্ট আপনি চাইলেও এই একাউন্টে কোন প্রকার সুদ নিতে পারবেন না এবং যুক্ত করতে পারবেন না। এই অ্যাকাউন্টে শরিয়াস সম্মত কেননা এই একাউন্টে উপকার মুনাফা প্রদান করা হয় না।

2. ডোনেশন

ইসলামিক আদর্শে পরিচালিত হওয়ার কারণে এই একাউন্ট থেকে বিভিন্ন ইসলামিক প্রতিষ্ঠানে ডোনেশন করতে পারবেন এবং আপনি চাইলে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে যাকাত দিতে পারবেন।

3. ইসলামিক ইন্সুরেন্স এর প্রিমিয়াম পেমেন্ট

বিভিন্ন ইসলামিক ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিগুলোতে পেমেন্ট করার জন্য আপনার নগদ ইসলামিক একাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন। এই অ্যাকাউন্ট এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই বিভিন্ন ইন্সুরেন্স কোম্পানিতে প্রিমিয়াম পেমেন্ট দিতে পারবেন।

4. হজর টুরস এন্ড ট্রাভেলস পেমেন্ট

এবার আপনি খুব সহজেই হজ্জ ট্যুর এবং ট্রাভেলস পেমেন্ট করার জন্য নগদ ইসলামিক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন। প্রতিবছর অসংখ্য মানুষ ট্রাভেল এজেন্সির মাধ্যমে হজে যাচ্ছে। নগদ ইসলামিক একাউন্ট থেকে আপনাকে হজের প্যাকেজ পেমেন্ট করার অপশন যুক্ত করেছে।

আমাদের শেষকথা: আজকে শিখলাম কিভাবে নগদ রেগুলার একাউন্ট থেকে নগদ ইসলামিক একাউন্টে রূপান্তর করতে হয়। আপনাদের কারো যদি নগদ ইসলামিক অ্যাকাউন্ট নিয়ে আরো কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে জানিয়ে দিবেন।

4 thoughts on “নগদ ইসলামিক একাউন্ট চালু করার নিয়ম”

Leave a Reply - Backlink not allowed