ইসলামিক উপায়ে মোটা হওয়ার কার্যকরী উপায়

ইসলামিক উপায়ে মোটা হওয়ার সহজ ও কার্য করি মাধ্যম, মোটা হওয়ার দোয়া ও আমল জেনে নিন। ইসলামে মোটা হওয়ার উপায় – ইসলামের দৃষ্টিতে মোটা হওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায় হলো “খেজুরের সাথে শসা খাওয়া“। আমাদের মধ্যে অনেক ছেলে মেয়ে আছে যারা অনেক চিকন বা শরীরের তুলনা ওজন কম। আপনি যদি এরকম হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য ইসলামের দৃষ্টিকোণ থেকে মোটা হওয়ার সুন্নত তরিকা রয়েছে।

স্বাস্থ্য টিপস – আপনি যদি স্থায়ীভাবে মোটা হতে চান তাহলে অবশ্যই এই আমল প্রত্যেকদিন করতে হবে, আপনাকে অন্তত প্রতিদিন ছয় থেকে সাতটি কাঁচা অথবা পাকা খেজুরের সাথে শসা টুকরো করে একত্রে মিশিয়ে খেতে হবে।

ইসলামে মোটা হওয়ার উপায়

শরিয়া দৃষ্টিকোণ থেকে পাওয়া যায় হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু সাল্লাম এর আমল করতেন এবং অন্যদেরকেও মোটা হওয়ার জন্য এই আমল অনুসরণ করতে বলতেন। সূর্য দৃষ্টিকোণ থেকে ইসলামিক উপায়ে মোটা হওয়ার সবচেয়ে কার্যকরী পদ্ধতি হলো খেজুর এবং শসা একত্রে মিশিয়ে সকাল এবং রাত্রে খুমানোর আগে খাওয়া

এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে শুধু আপনার শরীর মোটা হবে এবং শরীর থেকে চর্বি নিমিষেই দূর হয়ে যাবে। আপনি চাইলে এর মধ্যে অল্প পরিমাণ মধু মিশিয়ে খেতে পারেন এতে খাওয়ার মনোভাব বেড়ে যাবে এবং মধু বেশ পুষ্টিগুণ সম্পন্ন। খেজুর এবং শসা একসাথে মিক্স করার নিয়ম হলো, প্রথমে খেজুর মালা থেকে বিচি এড়িয়ে নেবেন ও খেজুরের সমপরিমাণ শসার টুকরো করবেন এবং খেজুরের প্রতিটি দানার ভিতরে এক টুকরো করে শসা নিয়ে নিবেন।

পরবর্তীতে আপনি এগুলো খুব সহজেই একটি একটি করে খেয়ে নিতে পারবেন আপনি চাইলে খেজুরের সাথে তুকমা ভিজিয়ে রাখতে পারেন আপনি আলাদাভাবে তুকমা খেতে পারেন।

মোটা হওয়ার হাদিস

হযরত আয়েশা রাঃ হতে বর্ণিত, আমার মায়ের প্রবল ইচ্ছা ছিল যে আমাকে স্বাস্থ্যবতি বানিয়ে হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু সাল্লাম এর নিকট পাঠাবেন।

এইজন্য আমাকে অনেক ধরনের চিকিৎসা করিয়েছেন কিন্তু কোনোটিতেই আমি স্বাস্থ্যের অধিকারী হতে পারিনি পরবর্তীতে তিনি “আমাকে খেজুরের সাথে শসা বা ক্ষীরা খাওয়াতে লাগলেন এবং আমি এতে উত্তমরূপে স্বাস্থ্যের অধিকারী হয়ে উঠি“।

মোটা হওয়ার হাদিস

তাই, আপনিও যদি স্বাস্থ্য বৃদ্ধি করতে চান এবং স্থায়ীভাবে মোটা হতে চান তাহলে অবশ্যই এই ইসলামে সুন্নত তরিকা আমল করতে পারেন অবশ্যই ইনশাআল্লাহ আপনি ভালো ফল পাবেন।

Gain weight in islamic way – তাহলে হাদিসে পাওয়া গেল শসা এবং খেজুর একসাথে খেলে স্বাস্থ্য বাড়বে। আপনি যদি বাজারে পাওয়া ঔষধ এবং অন্যান্য পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকেন তাহলে সেক্ষেত্রে আপনার শারীরিক সমস্যা হতে পারে।

ইসলামিক এ পদ্ধতি অবলম্বন করার মাধ্যমে আপনি স্থায়ীভাবে মোটা হতে পারবেন এবং শরীরের শক্তি বৃদ্ধি পাবে এবং মনোযোগ বাড়বে।

শসা এবং খেজুর এটি প্রাকৃতিক ফল তাই এই পদ্ধতিতে প্রাকৃতিক ও কার্যকরী পদ্ধতি বলা যায়। আপনি মোটা না হওয়া পর্যন্ত এই পদ্ধতি অবলম্বন করতে থাকেন এবং টানা দুই থেকে তিন মাস নিয়মিত খেজুর এবং শসা খান।

এই সুন্নত তরিকা এই সাস্থ্য টিপস অবলম্বন করে আপনি খুব সহজেই মোটা হয়ে যেতে পারেন। শরীর বৃদ্ধি পাবে এবং হার শক্ত হবে আপনি প্রতিদিন সকালে খাওয়ার আগে তোকমা ভিজিয়ে রেখে খেতে পারেন এটি আপনার শরীর এবং স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী হবে।

আমাদের শেষকথা: এই ছিল আজকের টপিক ইসলামিক ও সুন্নত তরিকায় মোটা হওয়ার কার্যকর পদ্ধতি আপনার যদি আরো কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন।

Leave a Reply - Backlink not allowed